ফেসবুকে গুজব: ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

news portal website developers

‌‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি, ছাত্রলীগ নিয়ে কটূক্তি, ভ্রান্তিকর গুজব ছড়ানো ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিয়ে কটূক্তি করার অপরাধে ছয় শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিস্কার এবং দুই শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে টাঙ্গাইল মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বুধবার (৮ আগস্ট) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিস এ তথ্য গণমাধ্যমকে জানায়।

সাময়িক বহিস্কৃতরা হলো- ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করার অপরাধে ইনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এন্ড রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের ছাত্র জাকিয়া রহমান ও জাকিয়া বেগম। ছাত্রলীগকে নিয়ে কটূক্তি করার অপরাধে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী তানভীর হাসান। ভ্রান্তিকর গুজব ছড়ানোর অপরাধে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ওবায়দুল্লাহ। ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করার অপরাধে পরিসংখ্যান বিভাগের ৩য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী সুমাইয়া ইসলাম। বিভিন্নজনের সাথে যোগাযোগ করে নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টা করার অপরাধে গণিত বিভাগের ১ম বর্ষ ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ইমরান হোসেন।

এছাড়াও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি কটূক্তি করার অপরাধে ক্রিমিনোলজি এন্ড পুলিশ সায়েন্স বিভাগের ৩য় বর্ষ ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী মেহনাজ জামান ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৩য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী শুভ্রা দেবনাথকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. সিরাজুল ইসলাম বলেন, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের নামে যারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি, ভ্রান্তিকর গুজব ছড়ানো, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিয়ে কটূক্তি ও বিভিন্নজনের সাথে যোগাযোগ করে নাশকতা করার চেষ্টা করেছে এমন ছয় শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিস্কার এবং দুই শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। আগামী সাত (৭) কর্ম দিবসের ভিতরে ‌‘কেন তাদের কে স্থায়ী বহিস্কার করা হবে না’? এর কারণ জানাতে বলা হয়েছে।

loading...