শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার তথ্য জানতে চাওয়ায় সাংবাদিককে ওসির গালমন্দ!

রাজধানীর ফার্মগেটে রোববার দুপুরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় একদল ব্যক্তি। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, হামলাকারীরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

পরে হামলার সত্যতা যাচাইয়ে তেজগাঁও থানার ওসি মাজহারুল ইসলামের (01713373180) মোবাইলে ফোন করা হয়।

সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে শুরুতেই রেগে যান তিনি। বলেন, ‘আমি ফার্মগেট এলাকায় আছি। এখানে এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

এরপর তিনি বলেন, ‘আপনাকে কে বলেছে- ফার্মগেট এলাকায় ছাত্রলীগ হামলা করেছে। এখানে কোনো সংঘর্ষ হয়নি। কই পান এসব ফালতু খবর।’

ঘটনাস্থল থেকে আমাদের স্টাফ রিপোর্টার হামলার বিষয়ে জানিয়েছেন বলা হলে ওসি মাজহারুল আরও উত্তেজিত হয়ে ওঠেন।

একপর্যায়ে তিনি আরও রেগে যান এবং অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন।

‘কোন শালা আপনাকে বলেছে- ফার্মগেটে ছাত্রলীগের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এসব ফালতু কথাবার্তা কে বললেন আপনাকে? তার নাম-পরিচয় দেন’ বলে তিনি ফোন কেটে দেন ওসি।
উল্লেখ্য, এদিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বেসরকারি এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা মিছিল নিয়ে ফার্মগেট মোড়ে যাওয়ার সময় হামলা করে এক দল তরুণ।

হামলাকারীরা ছাত্রলীগের কর্মী বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ক্যাম্পাস থেকে মিছিল বের করেন এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটির একদল শিক্ষার্থী।

তারা ফার্মগেটের আনন্দ সিনেমা হল পার হয়ে চার রাস্তার মোড়ে আসার আগেই হামলার শিকার হন।

শিক্ষার্থীরা জানান, মাথায় হেলমেট পরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে মিছিলে হামলা করেন। মুহূর্তেই মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

পরে মিছিলকারীরা ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে ঢুকে গেলে সেখানেও হামলা হয়। হামলাকারীরা ইউনিভার্সিটির ভবনের কাচ ভাঙচুর করেন। ১৫ মিনিট পর তারা চলে যান।

ঘটনাস্থল থেকে আমাদের স্টাফ রিপোর্টার প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে জানান, ফার্মগেট এলাকায় তেজগাঁও কলেজ ও ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের শিক্ষার্থীরা মিছিল বের করলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ধাওয়া দেন। এ সময় শিক্ষার্থীরাও তাদের ধাওয়া দিলে উভয়পক্ষে ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। সূত্র: যুগান্তর

news portal website developers eCommerce Website Design