অবশেষে সপ্তম দিনে বিদ্যুৎ পেল মুগদা হাসপাতাল

ঢাকা: রাজধানীর মুগদা ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টানা ছয় দিন বিদ্যুৎ না থাকার পর অবশেষে সপ্তম দিনে বিদ্যুৎ এসেছে। বিদ্যুৎ না থাকায় এতোদিন হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটার, এক্স-রে, এমআরআই, সিটিস্কিন, এন্ডোসকপির মতো গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

গত ১৭ জুলাই থেকে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ছিল ৫০০ শয্যার সরকারি এই হাসপাতালটি। রোববার এনিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে পরিবর্তন ডটকম। এর পরদিনই বিদ্যুৎ পেল হাসপাতালটি।

তবে বিদ্যুৎ আসলেও আজই শুরু হচ্ছে না এক্স-রে, এমআরআই, সিটিস্কিন, এন্ডোসকপির মতো গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম। মঙ্গলবার থেকে এসব কার্যক্রম চালু হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. ফারুক আহমেদ ভূঁইয়া।

তিনি পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ছয় দিন ধরে বিদ্যুৎ সমস্যা। আমরা বারবার পিডব্লিউডি অফিসে যোগাযোগ করছি। তারা সময় দিয়েছেন তিন দিন। কিন্তু শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটি থাকায় সমাধান হতে সাত দিন লেগে গেছে।

দীর্ঘ ভোগান্তির পর সোমবার বেলা ১১টার দিকে অবশেষে বিদ্যুৎ সংযোগ পায় রাজধানীর চতুর্থ সরকারি হাসপাতালটি।

জানা গেছে, মুগদা হাসপাতালে দুটি সাব-স্টেশন থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ হয়। হাসপাতালটিতে এখনো নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়নি।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের পরিচালক বলেন, স্পেস মিটার (যেখানে কখনো বিদ্যুৎ যাবে না) থাকার কথা। কিন্তু এখানে সেটা নেই। ডিপিডিসি-কে একাধিকবার বলা হয়েছে। কিন্তু তারা নিরবচ্ছিন্ন মিটারের লাইন দেয়নি।

তিনি জানান, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থার জন্য তিন কাঠা জমি দেয়া হয়েছে স্টেশন বসানোর জন্য। জুন মাসে তাদের এই কাজ শেষ করার কথা ছিল। কিন্তু এখনো শেষ হয়নি।

news portal website developers eCommerce Website Design