কার্টনের ভেতর ‘মায়ের আঁচলে’ মোড়ানো মৃত নবজাতক!

child lasকুমিল্লা: সাদা-জমিনে বাহারী পাতার ফুল, মেরুন রঙ্গের পাড়; পরিষ্কার একটি কাপড়ে ‘মায়ের আঁচলে’ মোড়ানো নবজাতক শুয়ে আছে বাদামী রঙের কার্টনের ভেতর। দু’হাত মুঠো করে, কিছুটা কাত হয়ে পায়ের তালুতে তালু ঘেঁষে শুয়ে আছে। যেন সদ্যই পৃথিবীতে আসা ফুটফুটে নবাজতক ঘুমচ্ছে- মায়ের বুকে, পরম শান্তিতে। ঘুম ভাঙ্গলেই শুরু উৎসব-অভ্যর্থনার যতো আয়োজন, হৈ-হুল্লোর, নাম বাছাইয়ের প্রতিযোগিতা…।

কিন্তু না। মানিক যে (মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়) বলে গেছেন ভিন্ন কথা- ‘জন্মের অভ্যর্থনা এখানে গম্ভীর, নিরুৎসব, বিষণ্ন। জীবনের স্বাদ এখানে শুধু ক্ষুধা ও পিপাসায়, কাম ও মমতায়, স্বার্থ ও সংকীর্ণতায়…’।

কখনো কখনো মানুষের কাম-পিপাসা ও সঙ্কীর্ণতা হারিয়ে দেয় ‘কালজয়ী মানিককেও’। যেমন হারিয়ে দিয়েছে কুমিল্লার দাউদকান্দিতে কার্টনে পাওয়া এ নবাজতকটি।

শুক্রবার বেলা ২টায় দাউদকান্দির গৌরীপুর-হোমনা সড়কের উত্তর পেন্নাই এলাকায় বাক্সের ভেতর কাপড়ে মোড়ানে অবস্থায় এক মৃত নবজাতক উদ্ধার করেছে পুলিশ। সকলের অগোচরে বাদামী রঙ্গের নতুন একটি কার্টনে করে নবাজতকটিকে কে বা কারা ফেলে যায়। পরে কৌতুহলী এলাকাবাসী কার্টনটি খুলে ভেতরে দেখে চমকে উঠে। খবর পাঠায় পুলিশে।

খবর পেয়ে গৌরীপুর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে কার্টনসহ মৃত নবজাতকটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে গৌরীপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আ স ম আবদুন নূর পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে সদ্যোজাত এক মৃত কন্যাশিশু উদ্ধার করা হয়েছে।’

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের মাধ্যমে নবজাতকটির দাফনকার্য সম্পন্ন হবে বলেও জানান তিনি।

news portal website developers eCommerce Website Design