যশোরে আত্মসত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: যশোরে রেহানা খাতুন (২৫) নামে পাঁচ মাসের অন্তসত্বা গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। মৃতের পিতার অভিযোগ তাকে যৌতুকের টাকার জন্যে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। স্বামীর দাবি সাংসারিক বিরোধের কারনে তার স্ত্রী গলায় ফাঁসদিয়ে আত্মহত্যা করেছে। মৃত রেহানা নিহত রেহানা খাতুন সদর উপজেলার কচুয়া গ্রামের হিরো হোসেনের স্ত্রী এবং ঝিনাইদাহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার দাঁঁদপুর গ্রামের দাউদ খাঁর মেয়ে।

নিহতের পিতা দাউদ হোসেন খাঁঁ জানান, তার মেয়ে রেহানার সাথে হিরোর ১২ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় নগদ টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল মিলে ৮-১০ লাখ টাকার মালামাল দেয়া হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে হামিম হোসেন (৬) নামে একটি ছেলে সন্তান আছে। জামাই হিরো হোসেন আগেও তিনটি বিয়ে ছিল। সে প্রায়ই সময় যৌতুক জন্য স্ত্রী রেহেনা খাতুনের উপর নির্যাতন করতো। ১০ হাজার ২০ হাজার টাকা করে তাকে এই পর্যন্ত অনেক টাকা দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি হিরো স্ত্রী রেহানার কাছে ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবী করে। টাকা দিতে অপারোগত প্রকাশ করায় রোববার রাতে রেহানাকে শ্বারোধ করে হত্যা করা হয়। পরে ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নিতে লাশ ঘরের আাড়র সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে লাশ হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যায়।

নিহতের মামি মিনা বেগমর অভিযোগ, রেহানা বেগম ৫মাসের অন্তসত্বা। সে গলায় ফাঁসদিয়ে আত্মহত্যা করেনি। তাকে যৌতুকের টাকার জন্যে পরিকল্পিত ভাবে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

নরেন্দ্রপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই মঞ্জুরুল আহসান জানান, এটা হত্যা না আত্মহত্যা ময়না তদন্ত রিপোর্ট না আসা পযন্ত বলা যাবে না। লাশের শরীরের কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে হিরো হোসেন একজন বখাটে যুবক। তার বিরুদ্ধে নারী ঘটিত বহু অভিযোগ রয়েছে।