মোংলায় চিংড়ি ঘের থেকে মাছ ব্যবসায়ীর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোংলার খাসেরডাঙ্গা এলাকার একটি চিংড়ি খামার থেকে হাত-পা বাধা অবস্থায় মৎস্য ব্যবসায়ীর দেব রঞ্জন হালদার’র (৫৪) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে পুলিশের প্রাথমিক ধারণায় এটি নিশ্চিত একটি হত্যাকান্ড। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মোংলার মিঠাখালী ইউনিয়নের খাসেরডাঙ্গা গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী দেব রঞ্জন হালদারকে শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে কে বা কারা ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায়। শনিবার সকাল পর্যন্ত তার কোন খোজ খবর না পেয়ে পরিবারের লোকজন এ ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এরপর শনিবার বিকালে তার বাড়ী সংলগ্ন একটি চিংড়ি খামারের কাজ করার সময় শ্রমিকরা গামছা ও একটি রশি দেখে সেটিকে টান দেয়। রশিটি টান দিতেই ভেসে উঠে দেব রঞ্জন হালদারের পা। পরে স্থানীয় লোকজন তার পরিবার ও পুলিশে খবর দেয়ার পর সন্ধ্যায় পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে। লাশের মাথা নিচের দিকে এবং পা ছিল উপরের দিকে। লাশটি ইট ও বস্তা দিয়ে ডুবিয়ে রাখা ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহত দেব রঞ্জন হালদারের একমাত্র ছেলে পার্থ হালদার (২৬) বলেন, শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে কে বা কাহারা তার বাবাকে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর সকাল থেকে তাকে অনেক খোজাখুজির পর সন্ধ্যায় পাশ্ববর্তী একটি চিংড়ি খামার থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, লাশের শরীরের কোথাও কোন দাগ বা চিহ্ন না থাকলেও প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি নিশ্চিত হত্যাকান্ড। লাশের ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।