১৫ অক্টোবর ইসির সংলাপে যাবে বিএনপি

ঢাকা: নির্বাচন কমিশনের (ইসি) চলমান সংলাপে অংশ নেবে মাঠের বিরোধী দল বিএনপি। আগামী ১৫ অক্টোবর দলটির একটি প্রতিনিধি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিএনপির প্রস্তাব তুলে ধরবে।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আগামী ১৫ অক্টোবর বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল নির্বাচন কমিশনে চলমান রাজনৈতিক দলগুলোর সংলাপে অংশ নেবে।

ইসির এ সংলাপে বিএনপির পক্ষ থেকে যেসব বিষয় তুলে ধরা হবে, সে ব্যাপারে দলটির সিনিয়র নেতারা আলোচনা করছেন বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, সংলাপে নির্বাচনে সেনা মোতায়েন, সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট প্রতিটি স্তরে নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের দায়িত্ব দেয়ার প্রদান এবং রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে দেয়া মামলা প্রত্যাহারসহ ছয়টি সুনির্দিষ্ট ইস্যুকে গুরুত্ব দেবে বিএনপি।

সংলাপে প্রস্তাব তুলে ধরার লক্ষ্যে চলছে প্রাথমিক খসড়া তৈরির কাজ। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে সিনিয়র কয়েকজন নেতা, ইসির সাবেক এক সচিব সংলাপের প্রাথমিক খসড়া তৈরির কাজ করছেন।

সূত্র জানায়, দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা সংলাপের আলোচ্য বিষয়ের খসড়া তৈরি নিয়ে পুরোদমে কাজ করছেন। লন্ডনে অবস্থানরত দলের চেয়ারপারসনের পরামর্শে এবং সিনিয়র নেতাদের মতের ওপর ভিত্তি করে দায়িত্বপ্রাপ্তরা এ খসড়া তৈরি করছেন। শীর্ষ নেতাদের পরামর্শের পরই খসড়া চূড়ান্ত করা হবে।

এর পর সংলাপের এক বা দুদিন আগে সিনিয়র নেতারা ফের বৈঠকে বসবেন। সেই বৈঠকেই চূড়ান্ত করা হবে লিখিত প্রস্তাব।

সংলাপে অংশ নেয়া প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত রোববার যুগান্তরকে বলেন, সংলাপে গেলে আমরা সব দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে যা যা করা প্রয়োজন তা করতে ইসিকে আহ্বান জানাব।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপের আগেই রোডম্যাপ ঘোষণা করেছে। এ থেকে সাধারণ মানুষের মনে তাদের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

তারপরও আমরা আশা করব ইসি বাস্তবতা উপলব্ধি করে সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা নেবে। গণতান্ত্রিক দল হিসেবে বিএনপি সেই নির্বাচনে যে কোনো সহযোগিতা করতে প্রস্তুত বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।