স্বাদের জাম্বুরার পুষ্টিগুণ

jamburaস্বাস্থ্য ডেস্ক : জাম্বুরার টক মিষ্টি স্বাদ সবাইকে আকর্ষণ করে। রসে ভরপুর অসংখ্য কোয়া সমৃদ্ধ এই ফলটি লবণ মরিচের গুড়ায় মেখে খেতেও দারুণ। ছোট বাচ্চারা স্কুল ছুটির পর মসলা মাখা দু-পাঁচ টাকার জাম্বুরা কিনে হাতের তালুতে রেখে খেতে খুবই পছন্দ করে। বড়রাও এর স্বাদ নিতে কার্পণ্য করেন না। তবে পরিচ্ছন্নতার কথা বিবেচনা করে আস্ত ফল কিনে এনে বাসায় কেটে খাওয়া ভালো। ধুলাবালি মিশ্রিত লেবু খেলে উপকারের চেয়ে বরং ক্ষতিই বেশি হবে। ফলটি খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। প্রতি ১০০ গ্রাম খাবার উপযোগী জাম্বুরায় পাবেন খাদ্যশক্তি ৩৮ কিলোক্যালরি, প্রোটিন ০.৫ গ্রাম, স্নেহ ০.৩ গ্রাম, শর্করা ৮.৫ গ্রাম, খাদ্যআঁশ ১ গ্রাম, থায়ামিন ০.০৩৪ মিলিগ্রাম, খনিজ লবণ ০.২০ গ্রাম, রিবোফ্লেভিন ০.০২৭ মিলিগ্রাম, নিয়াসিন ০.২২ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি২ ০.০৪ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি৬ ০.০৩৬ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ১০৫ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন ১২০ মাইক্রো গ্রাম, আয়রন ০.২ মিলিগ্রাম, ক্যালসিয়াম ৩৭ মিলিগ্রাম, ম্যাগনেসিয়াম ৬ মিলিগ্রাম, ম্যাংগানিজ ০.০১৭ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ১৭ মিলিগ্রাম, পটাশিয়াম ২১৬ মিলিগ্রাম, সোডিয়াম ১ মিলিগ্রাম। পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ জাম্বুরা নানান রোগের প্রতিকারক ও প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে। আসুন জেনে নেয়া যাক বিস্তারিত।

– জাম্বুরায় থাকা প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

– জাম্বুরার ভিটামিন সি ও বি হাড়, দাঁত, ত্বক ও চুলে প্রয়োজনীয় পুষ্টি যোগায়।

– এতে থাকা পর্যাপ্ত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দেহে ক্যানসারের জীবানুকে প্রতিহত করে।

– খাবারে রুচি ফেরাতে জাম্বুরা বেশ উপকারী।

– নিয়মিত জাম্বুরা খেলে হজমের সমস্যা দূর হয়। দূর করে দীর্ঘদিনের কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা।

– ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জাম্বুরার রস সাহায্য করে।

– জাম্বুরার ভিটামিন ‘সি’ রক্তনালির সংকোচন-প্রসারণ ক্ষমতা বাড়ায়।

– জাম্বুরা খেলে কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে থাকে।

– ওজন কমাতে জাম্বুরা সাহায্য করে।