‘শেখ হাসিনা নোবেল পাওয়ার দাবিদার’

টাঙ্গাইল: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নোবেল পাওয়ার দাবিদার বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। তিনি বলেন, নোবেল জয়ী অং সান সূ চির দেশেই রোহিঙ্গাদের গণহত্যা চলছে। মানবতার প্রশ্নে ইউরোপের অনেক দেশ তাদের বর্ডার সিল করে দিচ্ছে। সেই জায়গায় বাংলাদেশ লাখ লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এটার জন্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নোবেল পাওয়ার দাবিদার।

মঙ্গলবার সকালে টাঙ্গাইলে এক পথসভায় এসব কথা বলেন তিনি।

ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু প্রমাণ করেছে বিশ্ব শান্তির একমাত্র নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ১৯৪টি রাষ্ট্র স্বীকৃতি দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দর্শনকে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে তিনি যা যা করছেন তা জাতিসংঘে স্বীকৃত। বিশ্বব্যাপী শরণার্থী সমস্যা সমাধানের আলোকবর্তিকা হিসেবে তিনি উদ্ভাসিত হয়েছেন। বিশ্ব এটাকে স্বীকৃতি দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশের শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়েছিলেন সেটা ইতিহাস হয়ে আছে। সেটি যেরকম মানবতার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল আজকে রোহিঙ্গার বিষয়টিও কিন্তু মানবতার। শরণার্থী সমস্যার সমাধানে যে মানবতাবাদের পদক্ষেপ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা নিয়েছেন আমরা আশাবাদী এর সমাধান অবশ্যই হবে। তিনিও ইতিহাস হয়ে থাকবেন।

নোবেল বিজয়ীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন বারাক ওবামা। কিন্তু বারাক ওবামার কোনো দর্শন জাতিসংঘে স্বীকৃত নেই। শান্তিতে নোবেল পেয়েছেন ড. ইউনুছ। মিয়ানমারের এ ঘটনায় তিনি কোথায়?

সূ চি’র সমালোচনা করে তিনি বলেন, নোবেল জয়ী অং সান সূ চি’র গায়ে এখন পোড়া গন্ধ। রোহিঙ্গা ইস্যুটা এখন একটা মানবতার ইস্যু। আমরা আশাবাদী এই ইস্যুটি জাতীয় সংসদে উত্থাপিত হয়েছে। জাতিসংঘে এটা নিয়ে কথা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ, টাঙ্গাইল জেলা যুবলীগের সভাপতি রেজাউল রহমান চঞ্চল, সহ-সভাপতি খান আহমেদ শুভ প্রমুখ। এছাড়া কেন্দ্রীয়, জেলা ও উপজেলার নেতা-কর্মীরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।