রাবিতে সাংবাদিক মারধরের ঘটনায় ছাত্রলীগের দুঃখ প্রকাশ

rabi ruহাসান মাহমুদ, রাবি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কর্মরত সাংবাদিক আরাফাত রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। শুক্রবার রাতে ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দুঃখ প্রকাশ করেন তারা।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা উল্লেখ করেন, গত সোমবার ডেইলি স্টারের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি আরাফাত রহমানের সঙ্গে ঘটে যাওয়া এক অনাকাঙ্খিত ঘটনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা দুঃখ প্রকাশ করছে। উক্ত ঘটনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ দুইজনকে বহিষ্কার করেছে। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাবি শাখার পক্ষ থেকে রাবি শাখার সহসভাপতি মণিশংকর রায় নয়ন ও সজীব আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবিদ আহসান লাবন ও ইমতিয়াজ আহমেদ এবং উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক সানিউর রহমান সানীকে সর্তক করা হলো।

পরবর্তীতে দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী কোনো কাজে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, আমরা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় একটি পরিবার। সুতরাং, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাবি শাখা ও সাংবাদিকদের সৌহার্দ্যপূর্ণ ও ভ্রাতৃত্বের সম্পর্ককে প্রশ্নবিদ্ধ করে- এমন সমস্ত প্রসঙ্গ থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাবি শাখার সকল নেতাকর্মীকে বিরত থাকার নির্দেশ দেয়া হল।

এর আগে গত সোমবার বাস ভাঙচুরের ছবি তোলায় সাংবাদিক আরাফাত রহমানকে মারধর করে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এ ঘটনায় আরাফাত রহমান বাদী হয়ে মতিহার থানার রাবি ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান কানন, আইন বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিজয়, সহ-সভাপতি আহমেদ সজীব, সাংগঠনিক সম্পাদক আবিদ আহসান লাবন ও অজ্ঞাতনামা ৮-১০ জনকে আসামি করে দ-বিধির ৩০৭, ৩২৩ ও ৩২৫ ধারায় মামলা দায়ের করেন।

এছাড়া পরিবহন কোম্পানি দেশ ট্রাভেলসের ওই বাস ভাঙচুরের ঘটনায় বাসের সুপারভাইজার মানিক হোসেনও বাদী হয়ে ওই চার নেতার বিরুদ্ধে নগরীর মতিহার থানায় মামলা দায়ের করেন। তবে হামলার ছয়দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করেতে পারে নি পুলিশ।