বিয়ের আগে যে কাজগুলো করা দরকার

marrageলাইফস্টাইল ডেস্ক : বিয়ে মানে আপনার একাকিত্ব জীবনের অবসান আর সাংসারিক দায়িত্ব ও কর্তব্য ভরা জীবনে প্রবেশ। বলতে গেলে সিঙ্গেল জীবনের বিপরীত হলো বিবাহোত্তর জীবন। জীবনসঙ্গী তো আছেই, সাথে শ্বশুরবাড়ি, অনেক নতুন সম্পর্ক, সন্তান ইত্যাদি সব মিলিয়ে বিয়ের পর অনেক বেশী সিরিয়াস হয়ে যায় জীবনটা। বিয়ে করতে চলেছেন? তাহলে অবশ্যই এই ১৫টি কাজ একবার হলেও করে ফেলুন। বিয়ের পর আর সুযোগ নাও মিলতে পারে!

১. আপনার নিজের যাবতীয় ছোট ছোট শখ পূরণ করে ফেলুন। কে জানে বিয়ের পর জীবন কেমন হবে।

২. ভ্রমণের ইচ্ছা থাকলে বন্ধু/বান্ধবীদের সাথে দূরে কোথাও একা একা বেরিয়ে আসুন। বিশেষ করে আপনি মেয়ে হয়ে থাকলে তো অবশ্যই। কারণ বিয়ের পর অনেক বছর আর এসব হয়ে উঠবে না।

৩. নিজের লেখাপড়া অবশ্যই শেষ করুন। কিংবা এমন ব্যবস্থা বিয়ে করুন যেন বিয়ের পর ও লেখাপড়া ঠিক থাকে।

৪. পাবিরারিক রান্না করার জন্য টুকটাক রান্নাও শিখে ফেলুন, দারুণ কাজে আসবে।

৫. পুরনো যত প্রেমের সম্পর্ক ছিল, সবগুলোর পালা এমনভাবে চুকিয়ে ফেলুন যেন ভবিষ্যতে আর ঝামেলা না হয়।

৬. নিজের স্বপ্নের চাকরি বা কাজটি অবশ্যই খুঁজে নিন।

৭. ছোট বিষয়ে উত্তেজিত না হয়ে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করা শিখুন।

৮. অতীতের ভুল ভ্রান্তিগুলো শুধরে নিয়ে একজন নতুন মানুষ হয়ে উঠুন।

৯. পরিবারের সাথে প্রচুর সময় কাটান। বিশেষ করে আপনি মেয়ে হয়ে থাকলে। এই দিন কিন্তু আর ফিরে আসবে না।

১০.নিজের বন্ধুত্বগুলোকে যাচাই করে নিন। আপনার নতুন জীবনে স্থান পাওয়ার যোগ্য কারা সেটা বুঝে নেওয়া জরুরী।

১১. শারীরিক ও মানসিক ব্যায়ামের একটা রুটিন তৈরি করে কাজে নেমে পড়ুন। বিয়ের পর মুটিয়ে যাওয়া ঠেকাবে।

১২. বিয়ের পর হুট করেই জীবনটা প্রচণ্ড ব্যস্ত হয়ে উঠবে। তাই এখনই ভবিষ্যতের প্ল্যান করে ফেলুন।

১৩. নিজের স্বাধীন জীবনের প্রতিটি বিন্দু উপভোগ করুন, অযথা সময় নষ্ট করবেন না।

১৪. “ড্রিম ওয়েডিং” নিয়ে অযথা অস্থির না হয়ে জীবন সঙ্গীর সাথে চুটিয়ে প্রেম করে নিন।

১৫. জীবনসঙ্গীর জন্য কিছু সারপ্রাইজ প্ল্যান করুন।