‘বাল্যবিবাহ নিরোধ বিশেষ আইন থাকলে অগ্রগতি ব্যাহত হবে’

ওয়ান নিউজ, ঢাকা : বিশিষ্ট লেখক, কলামিস্ট ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, বাল্যবিবাহ নিরোধ বিশেষ আইন থাকলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ক্ষতিগ্রস্ত হবে, শিক্ষার ওপর প্রভাব পড়বে, সামাজিক অগ্রগতি ব্যাহত হবে।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের হলরুমে এক সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি। বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর বিশেষ বিধান (১৯ নং ধারা) বাতিলের দাবিতে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম এ সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শম্পা বসু বলেন, বাল্যবিবাহ দিয়ে আমরা একটি মেয়েকে অমানবিক জীবনের দিকে ঠেলে দিচ্ছি। বাল্যবিবাহ শুধু একটি অপরাধ নয়, এটা একের পর এক অপরাধের জন্ম দিয়ে থাকে।

সমাবেশে ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া বলেন, আইনটি নাম বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন হলেও এই আইনে বাল্যবিবাহের উস্কানি দেওয়া হয়েছে। যেখানে বাল্যবিবাহ দেখা যাবে সেখানেই প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান  জানিয়ে এই আইনজীবী বলেন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে আমরা সবসময় আপনাদের পাশে থাকবো।

আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মী ব্যারিস্টার সারা হোসেন বলেন, অল্প বয়সে বিয়ে করলে লেখাপড়ার ক্ষতি হয়। গরভ ধারণ করলে নানা সমস্যা দেখা দেয়। তাই অল্প বয়সে বিয়ে না করার পরামর্শ দেন এই আইনজীবী। বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন সম্পর্কে বলেন, এই আইনে বিশেষ যে বিধান আছে তা আমাদের জন্য চিন্তার বিষয়।

সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের সভাপতি রওশন আরা রুশোর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন ডা. মনিষা চক্রবর্তী। সমাবেশের আগে তারা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেন। শেষে প্রেসক্লাবের সামনে থেকে মিছিল বের করে কদম ফোয়ার ঘুরে পল্টন হয়ে আবার প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৭ ফেব্রুয়ারিতে সংসদে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ পাস হয়েছে।