বাকৃবিতে সেরা ৫ গবেষককে সম্মাননা প্রদান

বাকৃবি সংবাদদাতা : বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ১৩মে শনিবার দুদিনব্যাপী ২০১৫-১৬ বর্ষের গবেষণা অগ্রগতি বিষয়ক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ১১ টার দিকে বাকৃবি রিসার্চ সিস্টেম (বাউরেস) বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ নজরুল ইসলাম সম্মেলন কক্ষে এই কর্মশালাটির আয়োজন করে। এ সময় গবেষনার এইচ ইনডেক্স অনুযায়ী সেরা ৫জন গবেষককে সম্মাননা দেওয়া হয়।

১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে বাউরেসের অধীনে এ পর্যন্ত ১৭৭৮ টি প্রকল্প সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। প্রকল্পগুলোর মধ্যে ভেটেরিনারি অনুষদের ৩৫৪ টি, কৃষি অনুষদের ৬৫০ টি, পশুপালন অনুষদের ২১৮ টি, কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ১৩২ টি, কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ১৫৬ টি এবং মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ২৬৮ টি প্রকল্প সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়াও বৈদেশিক অর্থায়নে ২২ টি প্রকল্প সম্পন্ন হয়েছে ও ৩৩৫ টি প্রকল্প এখনো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে, গবেষনার এইচ ইনডেক্সের ওপর ভিত্তি করে সেরা ৫ জন গবেষকের মাঝে সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়। সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ফিসারিজ ও ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল ওহাব, কৃষি অনুষদের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মো. জহির উদ্দীন, ভেটেরিনারি অনুষদের প্যাথলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম এবং কৃষি প্রকৌশল ও কারিগরি অনুষদের কৃষি শক্তি ও যন্ত্র বিভাগের ড. মো. এহসানুল কবির।

বাউরেসের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. মঞ্জুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জসিম উদ্দীন খান এবং এ সি আই এর কৃষিব্যবসার নির্বাহী পরিচালক ড. এফ. এইচ. আনছারী। উক্ত অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষকতা করেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর। এছাড়া বিভিন্ন অনুষদের ডিন মহোদয়সহ প্রায় দু’শজন শিক্ষক-কর্মচারি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে প্রফেসর ড. আবদুল মান্নান বলেন যে কোন গবেষণাই মূলত বিশ্ববিদ্যালয়ের মান উন্নয়নের চাবিকাঠি। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার পরিধি আরও ব্যাপক করতে হবে।

১৪ মে রবিবার পর্যন্ত কর্মশালাটি চলবে।