অতিরিক্ত অ্যান্টাসিড সেবনে প্রভাব ফেলছে কিডনিতে!

kidniস্বাস্হ্য ডেস্ক : অতিরিক্ত অ্যান্টাসিড সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলছে কিডনিতে- এমনটাই মনে করছেন চিকিতৎসকেরা। চিকিতৎসকদের দাবি, অ্যান্টাসিডে রয়েছে ক্যালসিয়াম কার্বোনেট। যা কোষ্ঠকাঠিন্য বাড়িয়ে দেয়। শরীরে মাত্রাতিরিক্ত ক্যালসিয়াম কার্বোনেট অম্বল কমানোর চেয়ে বাড়িয়ে দেয়।

অ্যান্টাসিডের অ্যালুমিনিয়াম হাউড্রক্সাইডও কোষ্ঠকাঠিন্য বাড়িয়ে দেয় বলে কিডনির সমস্যা থাকলে বিপদ সাঙ্ঘাতিক। এটি রক্তে ফসফেটের পরিমাণ কমিয়ে দেয় বলে শরীর নিস্তেজ হয়ে পড়ে। এমনকি ডেকে আনতে পারে অ্যালঝাইমার্স রোগ। ম্যাগনেশিয়াম হাইড্রক্সাইড ও ম্যাগনেশিয়াম অক্সাইডের কারণে ডায়েরিয়া প্রকট হয়। কিডনির সমস্যা থাকলে তো মারাত্মক বিপদ হতে পারে। তাছাড়া অ্যান্টাসিডে থাকে সোডিয়াম বাইকার্বোনেট। রক্তে লবনের প্রকৃতিটাই বদলে দেয়। অ্যান্টাসিডের বিসমুঠ নুন এন্সিফ্যালোপ্যাথি ঘটাতে পারে। মস্তিষ্কের মারাত্মক রোগ। যার অন্য নাম ডিমেনশিয়া।

অতিরিক্ত অ্যান্টাসিড মিল্ক অ্যালকালি সিনড্রোম ঘটায়। রক্তে অতিরিক্ত ক্যালসিয়াম পৌঁছনো। যা কিডনি ফেলিওরের জন্য যথেষ্ট। শুধু তাই নয়, দিনের পরদিন অ্যান্টাসিড ব্যবহারে ঘটতে পারে হার্ট অ্যাটাক। দীর্ঘস্থায়ী মাথার যন্ত্রণা এবং হাড়ের রোগ হতে পারে। পেশির ক্ষতি করে। আলসার এবং পাকস্থলীর ক্যানসারের সম্ভাবনাও বেড়ে যায়। তাই যখন-তখন অ্যান্টাসিড সেবন করা ঠিক নয় বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।